ক্যান্সার বীমা কি?
  • শীর্ষ বীমা প্রদানকারীদের সেরা পরিকল্পনা
  • তাত্ক্ষণিকভাবে তুলনা করুন এবং কিনুন
  • 80 ডি এর আওতায় ট্যাক্স সুবিধা
PX step

অনলাইনে স্বাস্থ্য বীমার দরগুলি তুলনা করুন

1

2

নাম
কার জন্য কভার
জন্ম তারিখ (বয়োজ্যেষ্ঠ সদস্যটির)

1

2

ফোন নং.
শহর

অগ্রসর হওয়ার মাধ্যমে আপনি আমাদের শর্তাবলী এবং গোপনীয়তার প্রকল্পটি গ্রহণ করছেন

ক্যান্সার (কর্কট রোগ) সারা বিশ্বে মানুষের মৃত্যুর একটি অন্যতম কারণ। এটি একজন মানুষকে শুধু মানসিক ভাবে নিঃস্ব করে না আর্থিক ভাবেও করে। ক্যান্সার রোগীদের সম্পূর্ণ সাহায্য দেবার জন্য, ভারতের স্বাস্থ্য বীমা কোম্পানিগুলি ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা দেয়। একটি ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা ক্যান্সারের চিকিৎসার সাথে জড়িত একাধিক ধরণের খরচ কভার করে যেমন ভর্তি, কেমোথেরাপি, অস্ত্রপ্রচার, রেডিয়েশন ইত্যাদি। বীমাকৃত ব্যাক্তি রোগ নির্ণয়ের বিভিন্ন ধাপে (মাইনর, মেজর এবং গুরুতর) প্রয়োজনীয় অর্থ পায়। 

ক্যান্সার বীমা পলিসির গুরুত্ব

ক্যান্সার এমন একটি রোগ যার নিয়মিত চিকিৎসা / তত্ত্বাবধান প্রয়োজন। প্রায়শই, এই চিকিৎসাগুলি খুবই খরচসাধ্য। বিল পরিশোধ করার জন্য, একটি ক্যান্সার পরিকল্পনা কেনার সুপারিশ করা হয়। এটি একটি অর্থনৈতিক অবলম্বন কাজ করে এবং ক্যান্সার চিকিৎসার সাথে জড়িত সব বিলের দায়িত্ব নেয় যেমন কেমোথেরাপি, রেডিওথেরাপি এবং অস্ত্রপ্রচার। ক্যান্সার পরিকল্পনা একটি বিস্তারিত চিকিৎসার সুবিধার এক্সক্লুসিভ অন্তর্ভুক্তি দেয়। 

আপনার কেন একটি ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা দরকার?

ক্যান্সার বীমা বিবেচনা করার যোগ্য যদি আপনি -

  • পরিবারে ক্যান্সারের ইতিহাস থাকে। 
  • আপনার কাছে অপ্রত্যাশিত চিকিৎসার জরুরি মোকাবিলা করার মত যথেষ্ট সঞ্চয় না থাকে। 
  • আপনি যদি একমাত্র আয়কারী সদস্য হন। 
  • আপনার নিয়মিত স্বাস্থ্য বীমা পরিকল্পনা প্রয়োজনীয় অন্তর্ভুক্তি দেবার মত যথেষ্ট না হয়। 

ক্যান্সার বীমার জন্য আপনার কতটা কভার প্রয়োজন?

আদর্শ ক্যান্সার বীমা অংক নির্ভর করা উচিত ভবিষ্যতের চিকিৎসার খরচের ওপর যার মধ্যে রয়েছে রিকভারি, ওষুধ, হসপিটালে ভর্তি, অতিরিক্ত জীবনযাত্রার ব্যয় এবং রোগনির্ণয় পরীক্ষা। একটি অনুমান গণনা করেন এবং সেই মত বিনিয়োগ করুন। 

যদি আমার ইতিমধ্যে একটি স্বাস্থ্য বীমা থাকে, আমার কি একটি নির্দিষ্ট ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা প্রয়োজন?

যদি একজন মানুষের ইতিমধ্যে একটি স্বাস্থ্য বীমা পরিকল্পনা থাকে, তাহলেও একজনের একটি ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনায় বিনিয়োগ করা উচিত। তার কারণ হলো - একটি সাধারণ স্বাস্থ্য বীমা পরিকল্পনা ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য কেবল মাত্র সীমিত অন্তর্ভুক্তি দেয় কারণ এটি গুরুতর অসুস্থতা পরিকল্পনার মধ্যে পরে। 

একটি গুরুতর অসুস্থতা পরিকল্পনা কেবল মাত্র একটি থোক টাকার সুবিধা দেয় এবং বীমাকৃত ব্যক্তির দ্বারা ভবিষ্যৎ প্রিমিয়াম দেওয়া মওকুফ করে না। এই সব জিনিস একটি নিবেদিত ক্যান্সার সেবা পণ্য দ্বারা যত্ন নেওয়া যেতে পারে। এছাড়াও, একটি নিয়মিত স্বাস্থ্য বীমা পরিকল্পনা ক্যান্সার চিকিৎসার সকল ধাপে প্রয়োজনীয় অন্তর্ভুক্তি (কভারেজ) দিতে পারে না। 

বিভিন্ন ধরণের ক্যান্সার বীমা কি কি?

বিভিন্ন কোম্পানি ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা দেয়, যেগুলি আপনার ক্যান্সার চিকিৎসার খরচ কভার করতে সুবিধাজনক। বিভিন্ন ধরণের ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনাগুলি নিম্নরূপ -

পাকস্থলীর ক্যান্সার

  • ফুসফুসের ক্যান্সার 
  • স্তন ক্যান্সার
  • হাইপো ল্যারিংক্স ক্যান্সার
  • ডিম্বাশয়ের ক্যান্সার

ক্যান্সার বীমার সুবিধা কি কি?

কর সুবিধা

ভারতে ক্যান্সার সেবা পলিসিগুলি আয়কর আইন 1961 এর বিভাগ 80 ডি-এর অধীনে 25,000 টাকা পর্যন্ত আয়করের সুবিধা দেয়। 

নগদবিহীন চিকিৎসা

ক্যান্সার বীমা আপনাকে একটি নেটওয়ার্ক হাসপাতালে নগদবিহীন চিকিৎসা পেতে দেয় যার অধীনে আপনাকে আপনার উন্নত মানের চিকিৎসার জন্য এক পয়সাও খরচ করতে হয় না। 

ছাড় 

ক্যান্সার পরিকল্পনাগুলো বিভিন্ন ছাড়ের এবং অতিরিক্ত সুবিধার সাথে আসে গ্রাহকদের আরো আরাম দেবার জন্য। 

স্বাস্থ্য পরীক্ষা 

আপনি কোন ক্যান্সার বীমা অন্তর্ভুক্তি বেছে নিচ্ছেন তার ওপর নির্ভর করে, আপনি উন্নত কেন্দ্রে একটি বাৎসরিক মাস্টার চেক আপ পেতে পারেন। 

থোক টাকা প্রদান 

এটি ক্যান্সারের বিভিন্ন ধাপে অন্তর্ভুক্তি দেয়। রোগনির্ণয় রিপোর্টের ওপর নির্ভর করে পলিসি ধারক একটি থোক টাকা পেতে পারে। যদি পলিসিধারক এক বছরের মধ্যে কোনো দাবির সুবিধা না নেয়, তাহলে বীমাকৃত রাশি একটি বিশেষ শতকরা হারে বেড়ে যাবে যা বীমা পরিকল্পনায় উল্লেখ করা আছে। 

স্বয়ংক্রিয় পুনর্নবীকরণ

ক্যান্সার পরিকল্পনা বেশিরভাগই স্বয়ংক্রিয় পুনর্নবীকরণ হয়ে থাকে। এটি আমাদেরকে দীর্ঘ মেয়াদি অন্তর্ভুক্তির জন্য তৈরী করে। 

অনলাইন আবেদন

আপনি একটি ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনায় একটি সহজ অনলাইন পদ্ধতিতে বিনিয়োগ করতে পারেন যা মাত্র 5 মিনিট সময় নেয় আপনাকে বীমাকৃত করার জন্য। 

ভারতের সেরা ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা

কোম্পানি 

পরিকল্পনা 

প্রবেশের বয়স

ম্যাচুরিটি বয়স

বীমাকৃত রাশি 

ভারতের এলআইসি 

এলআইসি ক্যান্সার কভার

20-65 বছর 

50-75 বছর 

10 থেকে 50 লক্ষ টাকা 

ম্যাক্স লাইফ

ম্যাক্স লাইফ ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা 

25-65 বছর 

75 বছর (সর্বাধিক)

10 থেকে 50 লক্ষ টাকা 

এইচডিএফসি লাইফ ইন্সুরেন্স

এইচডিএফসি লাইফ ক্যান্সার কেয়ার 

5-65 বছর 

প্রযোজ্য নয় 

10 থেকে 50 লক্ষ টাকা 

এসবিআই লাইফ

এসবিআই সম্পূর্ণ ক্যান্সার সুরক্ষা 

6-65 বছর

75 বছর (সর্বাধিক)

10 থেকে 50 লক্ষ টাকা 

আইসিআইসিআই প্রুডেনশিয়াল 

আইসিআইসিআই প্রু হার্ট ক্যান্সার ইন্সুরেন্স 

18-65 বছর

23-75 বছর 

2 থেকে 50 লক্ষ টাকা

ক্যান্সার বীমা কেনার সময় যেসব জিনিস মনে রাখতে হবে

নিচে কয়েকটি জিনিস দেওয়া আছে যা একটি ক্যান্সার বীমা পলিসিতে বিনিয়োগ করার আগে আপনাকে বিবেচনা করতে হবে। 

  1. নিশ্চিত করুন যে আপনার পরিকল্পনা ক্যান্সারের সব পর্যায় কভার করে। বেশির ভাগ ক্যান্সার পরিকল্পনা ক্যান্সারের প্রাথমিক পর্যায়ে 30% পেমেন্ট করে এবং মেজর স্টেজে 70% পেমেন্ট করে। 
  2. একটি উচ্চ বীমাকৃত রাশির বিকল্প বেছে নেওয়া নিশ্চিত করুন কারণ ক্যান্সার চিকিৎসার খরচ দিনে দিনে বাড়ছে। সেটি করা চিকিৎসার সময় আপনার যথেষ্ট অর্থ থাকা নিশ্চিত করবে। 
  3. এমন একটি ক্যান্সার পরিকল্পনা কেনা নিশ্চিত করুন যেটি দীর্ঘ সময়ব্যাপী অন্তর্ভুক্তি দেবে। 
  4. আপনার সুবিধা অনুসারে প্রিমিয়াম প্রদানের বিকল্প বেছে নিন। 
  5. উপলব্ধ ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা তুলনা করুন এবং সেরা ডিল বেছে নিন। 

অনলাইনে ক্যান্সার বীমা কিভাবে কিনবেন?

ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনায় বিনিয়োগ করার অনেক পদ্ধতি আছে কিন্তু তাদের মধ্যে অনলাইন প্লাটফর্ম যেমন পলিসিএক্স ডট কমের মাধ্যমে বিনিয়োগ করা সবচেয়ে সেরা হিসাবে ধরা হয়। এই পোর্টাল আপনাকে নামকরা বীমা কোম্পানিদের থেকে বিভিন্ন ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা এক পাতায় তুলনা করতে দেয়। 

একটি ক্যান্সার বীমা পরিকল্পনা কেনার সহজ পদ্ধতি নিচে বর্ণনা করা হল। 

  • এই পাতার ওপরের ডান দিকে স্ক্রোল করে "সেরা কোম্পানি দেখে ফ্রি কোট"-এ যান। 
  • সাধারণ তথ্য যেমন জন্মতারিখ, বাৎসরিক আয়, লিঙ্গ ইত্যাদি দিন। 
  • 'কন্টিনিউ' ট্যাবে ক্লিক করুন। 
  • আপনার ফোন নম্বর, নাম এবং শহর দিন। 
  • 'প্রসিড' ট্যাবে ক্লিক করুন। 
  • ভারতের সেরা বীমা কোম্পানি থেকে উপলব্ধ কোট দেখুন। 
  • পছন্দসই পরিকল্পনাটি বেছে নিন এবং বেছে নেওয়া পরিকল্পনার ডান দিকে 'বাই দিস প্ল্যান'-এ ট্যাপ করুন। 
  • 'প্রসিড টু বাই' ট্যাবে ক্লিক করুন। 
  • আপনার 'ইমেইল আইডি' দিন এবং 'সাবমিট' ট্যাবে ক্লিক করুন।
  • এটি আপনাকে কোম্পানির অফিসিয়াল পেজে নিয়ে যাবে। 
  • উপলব্ধ পেমেন্ট বিকল্পের মাধ্যমে পেমেন্ট করুন। 
  • আপনার নিবন্ধীকৃত ইমেইল এড্রেসে আপনি পলিসি নথির সাথে একটি নিশ্চিতকরণ পাবেন। 

একটি ক্যান্সার বীমা দাবি কি করে দায়ের করবেন?

এখানে রয়েছে একটি দাবি দায়ের করার ধাপে ধাপে পদ্ধতি। 

দাবি অবহিত করা 

আপনাকে আপনার বীমাকারীকে অবহিত করতে হবে। এটি করা যেতে পারে মেইল, কল বা মেসেজের সাহায্যে। দাবিকারী নিজে বীমাকারী কোম্পানির অফিসে যেতেও পারেন। 

দাবি প্রক্রিয়াকরণ

আপনার থেকে একটি দাবি পত্র এবং প্রাসঙ্গিক নথি পাবার পরে, বীমা কোম্পানি সব তথ্য যাচাই করে দেখবে এবং আপনি দাবি করার যোগ্য কিনা খুঁজে বার করবে। প্রয়োজনীয় নথি বিভিন্ন ক্যান্সারের ধরণের জন্য আলাদা হতে পারে। 

নিস্পত্তি 

সব নথি মূল্যায়নের পরে, বীমা কোম্পানি আপনার দাবির আবেদন হয় গ্রহণ করবে বা প্রত্যাখ্যান করবে। গ্রহণ করার ক্ষেত্রে, কোম্পানি খরচগুলি নেটওয়ার্ক হাসপাতালের সাথে মিটিয়ে নেবে। যদি এটি একটি পরিশোধ ক্ষেত্র হয়, দাবীকারীর একাউন্টে টাকা জমা করা হবে। 

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • পরিচয় পত্র 
  • বয়স প্রমাণপত্র 
  • চিকিৎসা এবং রোগনির্ণয় পরীক্ষার রিপোর্ট যা রোগের পর্যায় এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ইঙ্গিত দেবে। 
  • অন্য কোন নথি না বীমা কোম্পানি দাবির প্রক্রিয়াকরণের সময় যদি চায়।