করোনা ভাইরাস সম্পর্কে (কোভিড-19)
  • শীর্ষ বীমা প্রদানকারীদের সেরা পরিকল্পনা
  • তাত্ক্ষণিকভাবে তুলনা করুন এবং কিনুন
  • 80 ডি এর আওতায় ট্যাক্স সুবিধা
PX step

অনলাইনে স্বাস্থ্য বীমার দরগুলি তুলনা করুন

1

2

নাম
কার জন্য কভার
জন্ম তারিখ (বয়োজ্যেষ্ঠ সদস্যটির)

1

2

ফোন নং.
শহর

অগ্রসর হওয়ার মাধ্যমে আপনি আমাদের শর্তাবলী এবং গোপনীয়তার প্রকল্পটি গ্রহণ করছেন

নভেল করোনা ভাইরাস, যা ভাইরাস বংশীয়, ইতোমধ্যেই সমগ্র বিশ্বে লক্ষ লক্ষ মানুষের উপর প্রভাব বিস্তার করেছে। ভারতবর্ষে, করোনা পজিটিভ আক্রান্তের সংখ্যা ছয় হাজার ছাড়িয়ে গেছে এবং তা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। ভাইরাসটি প্রবল সংক্রমনাক এবং স্বাস কষ্ট, শুষ্ক ঠোঁট, কিডনির অকেজতা এবং এমনকি বহু অঙ্গের কর্মক্ষমতা বন্ধ করে দেওয়ার মতো সমস্যাগুলির লক্ষণ দেখা দেয়। আজকের দিনে, এই ভাইরাসটি সমগ্র বিশ্বে 90 লক্ষের মতো মানুষকে আক্রান্ত করেছে এবং 4 লক্ষেরও বেশি মানুষ মারা গেছে।

ইন্সুরেন্স রেগুলেটরি এন্ড ডেভেলপমেন্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়া কর্তৃক জারি করা নির্দেশাবলী অনুযায়ী, ভারতের বীমা প্রদানকারী সংস্থাকে এমন পরিকল্পনার রূপায়ন করতে হবে যা বিশেষ কিছু ভাইরাল সংক্রমণের ক্ষেত্রে সুরক্ষিত কভারেজ প্ৰদান করতে হবে। নানান স্বাস্থ্য বীমা সংস্থা যেমন আইসিআইসিআই লম্বার্ড এন্ড ডিজিট ইন্সুরেন্স করোনা ভাইরাসে আক্রমনের ক্ষেত্রে হাসপাতাল ভর্তি এবং চিকিৎসার কভারেজ প্ৰদান করে।

চলুন এবার করোনা ভাইরাস হেলথ ইন্সুরেন্স এবং তার ব্যবহারের গুরুত্ব সম্পর্কে আরও বিশদে জানা যাক এবং দেখা যাক এই ধরনের প্ল্যান আমাদের ক্রয় করা উচিত কিনা।

কোভিড-19 ইন্সুরেন্স এর গুরুত্ব

নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব এক প্রকার অনিশ্চিত পরিস্থিতির সৃস্টি করেছে। সামাজিক স্তরে ওর প্রভাবের পাশাপাশি, ভাইরাসটি নিশ্চিতরূপে অর্থনীতির উপরও প্রভাব ফেলে। বর্তমান পরিস্থিতির নিরীখে, আপনি আর্থিক জরুরি অবস্থার মোকাবিলা করতে গিয়ে অনেক ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন। অতএব, করোনা ভাইরাস-কেন্দ্রিক স্বাস্থ্য বীমার প্রয়োজন অপরিহার্য হয়ে উঠেছে।

যেহেতু হু কর্তৃক করোনা ভাইরাসকে একটি অতিমারী হিসাবে ঘোষণা করেছে, অতিমারী সংক্রান্ত ভিন্ন বীমার পরিকল্পনাগুলিতে এই অতিমারীর কভারেজ বহির্ভূত থাকে তাই বীমাকৃত ব্যক্তিটি আর্থিক সুরক্ষা লাভের থেকে বঞ্চিত হবেন। তাই এই কারনে করোনা ভাইরাসের প্রয়োজন দেখা দেয়। করোনা ভাইরাস বীমাটি পরিকল্পনা করা হয়েছে যাতে করে বীমার আওতাধীন ব্যক্তিটি যদি করোনা পজিটিভ হন তাহলে সেক্ষেত্রে তিনি চিকিৎসা ও হাসপাতালের ভর্তির খরচ লাভ করবেন।

বাজারে নানা বীমা প্রদানকারী সংস্থা আছে যারা বিশেষত করোনা ভাইরাসের কভরেজ প্ৰদান করার জন্য ভিন্ন ধরনের প্ল্যান নিয়ে উপস্থিত হয়েছে। আলাদা আলাদা বীমা সংস্থা কর্তৃক প্রদত্ত এই প্ল্যানগুলি তুলনা করুন যেখান থেকে আপনি একটি নির্বাচন করবেন যা গুনগত কভারেজ এবং সঠিক উপযুক্ত শর্তাবলী প্ৰদান করে।

করোনা ভাইরাস- সম্পর্কিত প্ল্যানগুলির মূল বৈশিষ্ট্য

বীমার পরিকল্পনার মূল বৈশিষ্ট্যগুলি যা করোনা ভাইরাস হেলথ ইন্সুরেন্স কভারেজ প্ৰদান করে তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো:

অপেক্ষা কাল: অন্যান্য চিকিৎসা বীমার পরিকল্পনার মতো, করোনা ভাইরাস-বিশিষ্ট প্ল্যানগুলি সাধারণত 14-16 দিনের অপেক্ষাকালের সাথে উপলব্ধ হয়। এটি একটি পরিকল্পনা থেকে অপর পরিকল্পনার ক্ষেত্রে হের ফের হয়।

বীমার অর্থ: বীমাকৃত ব্যক্তিটি বীমার 100% অর্থ দাবি জানবার জন্য যোগ্য হবেন যদি তিনি অন্তত পক্ষে 24 ঘন্টার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হন। একজন ব্যক্তি অবশ্য একটি দাবির অনুরোধ জানাতে পারেন যখন তিনি কোয়ারান্টিনে থাকবেন এবং এর জন্য বীমার 50% অর্থ লাভ করবেন।

কভারেজ: নভেল করোনা ভাইরাসের বীমার পরিকল্পনার জন্য কভারেজের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি সংক্রান্ত সমস্ত খরচ যেমন গৃহে হাসপাতালের চিকিৎসা, আইসিইউ ঘরের খরচ, এবং দৈনন্দিন হাসপাতালের চিকিৎসার জন্য নগদ প্ৰদান করে। হাসপাতালে ভর্তির পূর্বের চিকিৎসা (হাসপাতালে ভর্তির 60 দিন পূর্বে) এবং হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর খরচ ইত্যাদিও কভার করা হয়।

জেনারেল ইন্সুরেন্স কোম্পানি কর্তৃক প্রদত্ত কোভিড-19 সম্পর্কিত প্ল্যানগুলি

বর্তমানে, করোনা ভাইরাস বীমার পরিকল্পনাটি সীমিত কিছু বীমা প্রদানকারী সংস্থা কর্তৃক ক্রেতাদের জন্য বাজারে উপস্থাপনা করা হয়েছে।

এদের বিবরণ নিচে প্ৰদান করা হলো:

স্টার হেলথ ইন্সুরেন্স করোনা ভাইরাস ইন্সুরেন্স

স্টার হেলথ ইন্সুরেন্স করোনা ভাইরাস ইন্সুরেন্স বীমা প্রদানকারী ব্যক্তিকে একটি বিপুল পরিমাণ অর্থ লাভ হিসাবে প্ৰদান করে যিনি করোনা ভাইরাস পজিটিভ এবং হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হন। বীমার অর্থ দাবি করার জন্য আবেদনকারীকে কোন প্রকার শারীরিক পরীক্ষা করাতে হবে না। পলিসিটিতে গ্রাহককে বিনামূল্যে 15 দিনের জন্য একটি পরীক্ষা কাল প্ৰদান করা হয়।

যোগ্যতা

18-65 বছর

অপেক্ষা কাল

16 দিন

বীমার অর্থ

দুটি বিকল্প- 21,000 টাকা এবং 42,000 টাকা

টেবিলের তথ্য সর্বশেষ আপডেট হয়েছে 21-07-2020 তারিখে

আইসিআইআই লম্বার্ড হেলথ ইন্সুরেন্স

এই স্বাস্থ্য বীমাটি তাঁদের জন্য বিশেষ ভাবে পরিকল্পনা করা হয়েছে যাঁরা করোনা ভাইরাস পজিটিভ এবং এই ভাইরাস রোগ নির্ণয়ের ফলে গ্যারান্টি সহকারে বিপুল অর্থ প্ৰদান করা হয়।

যোগ্যতা

18-75 বছর

অপেক্ষা কাল

14 দিন

বীমার অর্থ

25,000 টাকা

টেবিলের তথ্য সর্বশেষ আপডেট হয়েছে 21-07-2020 তারিখে

ডিজিট ইন্সুরেন্স

ডিজিট ইন্সুরেন্স একটি বীমার প্ল্যান প্ৰদান করে যা বিশেষভাবে সেই সমস্ত ব্যক্তির জন্য পরিকল্পনা করা হয়েছে যিনি এই মারণ ভাইরাসের দ্বারা আক্রান্ত। দাবির আবেদন জানানোর ফলে, বীমাকৃত ব্যক্তিটি দাবির 100% অর্থই লাভ করবেন, যদি তিনি কোন কারনে এই ভাইরাসের দ্বারা আক্রান্ত হন। বীমাকৃত ব্যক্তিটি বীমার অর্থের 50% লাভের যোগ্য হবেন এমনকি যদি পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসে।

যোগ্যতা

75 বছর পর্যন্ত

অপেক্ষা কাল

15 দিন

বীমার অর্থ

25,000 টাকা - 2 লক্ষ টাকা

টেবিলের তথ্য সর্বশেষ আপডেট হয়েছে 21-07-2020 তারিখে

করোনা ভাইরাস ইন্সুরেন্স প্ল্যানের অন্তর্ভুক্ত

পরীক্ষার দ্বারা এই ভাইরাসের উপস্থিতি যাঁদের শরীরে মিলবে বিশেষ ভাবে তাঁদের জন্য প্ল্যানে যে সমস্ত বিষয়গুলি সাধারণত অন্তর্ভুক্ত থাকে তা নিচে প্ৰদান করা হলো:

হাসপাতালে ভর্তির খরচ

করোনা ভাইরাস - সম্পর্কিত প্ল্যানগুলি চিকিৎসার খরচ এবং হাসপাতালের ভর্তির খরচ থেকে মুক্তি দেয়। এমনকি, 24 ঘন্টারও বেশি সময় ধরে হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে খরচ বীমা প্রদানকারী সংস্থা কর্তৃক প্ৰদান করা হয়।

কোয়ারান্টিন কভার

করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত স্বাস্থ্য বীমা করোনা ধরা পড়ার পর কেবলমাত্র আপনার হাসপাতালে ভর্তির খরচই প্ৰদান করে না তা বরং একজন বীমাকৃত ব্যক্তিকে বীমার সুবিধা প্ৰদান করে যিনি সরকার দ্বারা নির্দেশিত কেন্দ্রে কোয়ারান্টিনে থাকেন।

অতিরিক্তি কভারেজ

করোনা ভাইরাস- সম্পর্কিত স্বাস্থ্য বীমার প্ল্যানগুলি যেমন ডিজিট ইন্সুরেন্স কর্তৃক একটি প্ৰদান করা হয় তা অতিরিক্ত সুবিধা প্রদান করে যেমন মাতৃত্ব লাভের সুবিধা ও সাথে নবজাত শিশুর কভার, এবং বিকল্প চিকিৎসা যেমন হোমিওপ্যাথি, আয়ুর্বেদিক অথবা ইউনানী চিকিৎসার সুবিধা।

করোনা ভাইরাস ইন্সুরেন্স প্ল্যান বহির্ভূত

করোনা ভাইরাস এর চিকিৎসার ক্ষেত্রে যে সমস্ত খরচ হয় তার সুরক্ষা প্ৰদান করা স্বাস্থ্য বীমার বহির্ভূত বৈশিষ্ট্যগুলি নীচে উল্লেখ করা হলো:

জন্মর পূর্বে এবং পরবর্তী খরচ

শিশুর জন্মের পূর্বে এবং পরবর্তী খরচ সাধারণত এর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকে না। যদি কোন কারনে আপনার এই কভারেজটির প্রয়োজন হয় তাহলে, আপনার বীমা প্ৰদানকারীর সাথে অথবা এজেন্টের সাথে কথা বলুন একটি অতিরিক্ত এড-অন কভারেজ পাওয়ার জন্য।

পূর্ব-অস্তিত্ব রোগ

করোনা ভাইরাস হেলথ ইন্সুরেন্স কোনো পূর্ব অস্তিত্বমান অসুস্থতার কভারেজ প্ৰদান করে না। আবার, বীমাকৃত ব্যক্তি যাঁর মধ্যে পলিসি ক্রয় করার ছয় সপ্তাহ পূর্বে করোনা ভাইরাসের মতো উপসর্গ মেলে, তিনি এই দাবি আবেদনের যোগ্য নন।

ডাক্তারের অনুমোদন ছাড়া হাসপাতালে ভর্তির জন্য কভারেজ

যদি বীমাকৃত ব্যক্তিটি ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন অথবা অনুমোদন ছাড়াই হাসপাতালে ভর্তি হন, সেক্ষেত্রে তিনি হাসপাতালে হওয়া খরচের ফলে দাবির অর্থ লাভের যোগ্য হবেন না।

করোনা ভাইরাস প্ল্যান বনাম চিরাচরিত স্বাস্থ্য বীমার পরিকল্পনা 

বীমার প্ল্যানগুলি যা বিশেষ ভাবে করোনা ভাইরাসের চিকিৎসার সুরক্ষা প্ৰদান করে তা আইআরডিএআই এর অনুমোদনের সাহায্যে পরিকল্পনা করা হয়েছে। এই প্ল্যানগুলি মূলত এই চিন্তা ভাবনা করে বাজারে নিয়ে আসা হয়েছে যে আপনার চিরাচরিত স্বাস্থ্য বীমাগুলি এই ভয়াবহ সংক্রমনাক ভাইরাস বাহিত রোগের চিকিৎসার সুরক্ষা প্ৰদান করে কিনা।

কিন্তু আপনাকে অবশ্যই এই সত্যটা উপলব্ধি করতে হবে যে চিরাচরিত বীমা প্রয়োজন ভিত্তিক বিশেষ বীমার পরিকল্পনা থেকে বহু দিক থেকে আলাদা হয়। এই দুটির মধ্যে পার্থক্য নিচে উল্লেখ করা হলো:

বিভেদের ভিত্তি

চিরাচরিত বীমার প্ল্যান

চাহিদা-ভিত্তিক বীমার প্ল্যান

কভারেজ

চিরাচরিত স্বাস্থ্য বীমার প্ল্যানগুলি হাসপাতালে ভর্তির সমস্ত খরচ প্ৰদান করে যে মধ্যে মারাত্মক অসুখ ও দুর্ঘটনার ফলে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া অন্তর্ভুক্ত আছে।

করোনা ভাইরাস ইন্সুরেন্স প্ল্যানগুলি হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসার খরচ প্ৰদান করে কেবলমাত্র যদি বীমাকৃত ব্যক্তিটি করোনা ভাইরাস পজিটিভ হন।

নবিকরন

চিরাচরিত হেলথ ইন্সুরেন্স প্ল্যানগুলি এক বছর অন্তর অন্তর নবিকরন করা যায়।

চাহিদা-ভিত্তিক প্ল্যানগুলি নবিকরন করা সম্ভব না জেহেতু তাদের পলিসির মেয়াদ এক বছরের জন্য হয়।

অতিরিক্ত বীমার অর্থের উপলব্ধতা

চিরাচরিত বীমার পরিকল্পনাগুলির ক্ষেত্রে হাসপাতালে ভর্তি এবং চিকিৎসার খরচ যোগানের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত বীমার অর্থ লাভের সুবিধা আছে।

চাহিদা-ভিত্তিক প্ল্যানগুলি কোন অতিরিক্ত বীমা অর্থ প্রদানের সুবিধা দেয় না।

করোনা ভাইরাস প্ল্যানগুলি ক্রয় করার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টগুলি

এই বীমার পরিকল্পনাটি নির্দিষ্ট ভাবে উপস্থাপনা করা হয়েছে সেই সমস্ত ব্যক্তির জন্য যিনি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত এবং এর ফলে সহজ ও ঝক্কি-হীন রেজিস্ট্রেশন ও দাবির নিষ্পত্তির পদ্ধতি প্রদানের মাধ্যমে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো প্রতিটি ব্যক্তিকে অতিমারীর সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে চাহিদা- ভিত্তিক বীমা সম্পর্কে সচেতন করা। অতএব, এই চাহিদা- ভিত্তিক বীমার ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন এবং দাবির নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে নুন্যতম ডকুমেন্ট ভিত্তিক কাজের প্রয়োজন।

করোনা ভাইরাস ইন্সুরেন্স ক্রয়ের জন্য যে যে ডকুমউন্টগুলির প্রয়োজন তা চিরাচরিত ইন্সুরেন্স ক্রয় করার ক্ষেত্রে যা যা প্ৰদান করা হয় তাই। এই ডকুমেন্টগুলি নিচে তালিকাবদ্ধ করা হলো:

বয়সের প্রমাণ: আপনি আপনার বয়সের প্রমাণ হিসাবে প্যান কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, জন্মের সার্টিফিকেট অথবা আপনার ভোটার আইডি কার্ড ব্যবহার করতে পারেন।

সচিত্র পরিচয়পত্রর প্রমাণ: আপনি সচিত্র পরিচয় পত্রের প্রমাণ হিসাবে আপনার পাসপোর্ট, প্যান কার্ড, আধার কার্ড অথবা ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যবহার করতে পারেন।

ঠিকানার প্রমাণ: রেশন কার্ড, ইউটিলিটি বিল, টেলিফোন বিল ইত্যাদি ঠিকানার প্রমাণ হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।

উপার্জনের প্রমাণ: উপার্জনের প্রমাণ হিসাবে নিয়োগকর্তার সার্টিফিকেট, স্যালারি স্লিপ অথবা ফর্ম 16 ব্যবহার করা যেতে পারে।

মেডিক্যাল রিপোর্ট: একটি করোনা ভাইরাস - সম্বন্ধিত প্ল্যান ক্রয় করার সময় আপনাকে সম্ভবত মেডিক্যাল রিপোর্ট জমা করার কথা বলা হতে পারে।

PolicyX.com থেকে কেন ক্রয় করতে পছন্দ করবেন?

করোনা ভাইরাস-সম্বন্ধিত বীমার মধ্যে কিছু অন্তর্ভুক্তি এবং ব্যতিক্রম আছে যা সাধারণ চিরাচরিত স্বাস্থ্য বীমার থেকে আলাদা হয়। অতএব, বীমার পরিকল্পনাগুলি তুলনা করা খুবই জরুরি এটা সুনিশ্চিত করার জন্য যে আপনি নিজের জন্য সব থেকে বেশি লাভ করেছেন। PolicyX.com এ, আপনার সুবিধা মতো একটি প্ল্যান ক্রয় করার পূর্বে আপনি ভিন্ন বীমা সংস্থা কর্তৃক প্রদত্ত এবং বাজারে উপলব্ধ করোনা ভাইরাসের বীমার পরিকল্পনাগুলি তুলনা করতে পারেন, প্রতিটি অন্তর্ভুক্তি এবং ব্যতিক্রমগুলি তুল্যমূল্য বিচার করে এবং নিয়ম ও শর্তাবলী পর্যালোচনা করে নিতে পারেন।

কিন্তু আপনি কেনPolicyX.com নির্বাচন করবেন? 

এখানে কিছু কারণ উল্লেখ করা হলো:

আপনার ব্যক্তিগত বীমার পথপ্রদর্শক

PolicyX.com এ, বাজারে প্রচলিত নানান বীমা সংস্থার ব্যানারের অধীনে উপলব্ধ ভিন্ন বীমা পরিকল্পনাগুলি সম্পর্কে বিশদে জানতে আমরা আপনাকে সাহায্য করি। বীমার পরিকল্পনাগুলি সম্পর্কে একটি সুস্পষ্ট এবং নিরপেক্ষ মতামত লাভ করার জন্য, আপনি সর্বদা আমাদের কাছে আসতে পারেন।

আমরা ক্রেতাদের পরিষেবা দেওয়ার দিক থেকে সেরা

আমাদের বিশেষ ভাবে নিবেদিত ক্রেতা পরিষেবার দল বীমা সংক্রান্ত আপনার প্রশ্নের উত্তর দিতে এবং আপনার অর্থ ও চাহিদার কথা মাথায় রেখে আপনার জন্য সব থেকে উত্তম বীমার পরিকল্পনাটি ক্রয় করতে সাহায্য করার জন্য সদা প্রস্তুত।

আমরা আইআরডিএআই কর্তৃক অনুমোদিত

আমরা কার্য প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য আইআরডিএআই কর্তৃক অনুমোদিত। যদি আপনার মূল উদ্দেশ্য সঠিক ও নির্ভেজাল বীমার উপাদান ক্রয় করা হয় তাহলে PolicyX.com হলো নিঃসন্দেহে আপনার জন্য শ্রেষ্ঠ স্থান।

ক্রয়ের পদ্ধতি 

বাজারের কোন নামজাদা বীমা সংস্থা থেকে করোনা ভাইরাস-সম্বন্ধিত বীমা ক্রয় করার জন্য নিম্নলিখিত ধাপগুলি অনুসরণ করে চলুন:

ধাপ 1: PolicyX.com এর ওয়েবসাইটটি পরিদর্শন করুন এবং হেলথ ইন্সুরেন্স ক্লিক করুন।

ধাপ 2: কত জনের জন্য বীমার কভারেজ প্রয়োজন তা স্থির করে আপনার পছন্দ অনুযায়ী চাহিদা-ভিত্তিক বীমার পরিকল্পনা নির্বাচন করুন এবং বীমার আওতাধীন সবথেকে বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তির জন্মতারিখ প্ৰদান করুন।

ধাপ 3: এই পর আপনাকে অবশ্যই আপনার নাম, আপনার শহর প্ৰদান করতে হবে এবং আপনার সাথে যোগাযোগের নম্বরটি জমা করুন।

ধাপ 4: 'প্রসিড টু গেট কোটস' (দাম জানতে অগ্রসর হন) ক্লিক করুন। আপনাকে এমন একটি পেজে নিয়ে যাওয়া হবে যেখানে করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত ভিন্ন প্ল্যানগুলির দাম উল্লেখ করা আছে। 

ধাপ 5: এডভান্স ফিল্টার এবং কোম্পানি ফিল্টার প্রয়োগ করে আপনি আপনার খোঁজটি বিশেষ প্রয়োজন ভিত্তিক করে তুলতে পারেন।

ধাপ 6: একটি নির্দিষ্ট পরিকল্পনা ক্রয় করতে হলে, কেবলমাত্র 'বাই দিস প্ল্যান' (অর্থাৎ এই প্ল্যানটি ক্রয় করুন) অপশনে ক্লিক করুন। আপনাকে পরবর্তী পেজে প্রেরণ করা হবে।

ধাপ 7: আবেদনকারীর বিবরণ, নমিনির বিবরণ এবং বীমাকৃত ব্যক্তির বিবরণ ইত্যাদি পূরণ করুন। সেভ করুন এবং এগিয়ে যান।

ধাপ 8: আপনার প্ৰথম প্রিমিয়ামটি পরিশোধ করুন এবং আপনার ই-মেল আইডিতে আপনার পলিসিটি প্রেরণ করা হবে।

করোনা ভাইরাস প্ল্যানগুলির নবিকরন

যেহেতু করোনা ভাইরাস সম্বন্ধিত বীমার মেয়াদ 1 বছরের হয়, তাই এই পরিকল্পনাগুলি নবিকরন হয় না। যদি আপনি এই ভাইরাস পজিটিভ হন সেক্ষেত্রে আপনি বীমার অর্থের 100% দাবি জানাতে পারেন এবং আপনি যদি পরীক্ষার দ্বারা করোনা পজিটিভ নাও হন তবুও আপনি 50% অর্থ লাভের যোগ্য হবেন। অবশ্য, এক বছর পূর্ণ হওয়ার আগেই যদি আপনি দাবির আবেদন জানান সেক্ষেত্রে আপনার এই নিৰ্দিষ্ট প্ল্যানটি বাতিল হয়ে যাবে।

দাবির পদ্ধতি

বীমাকৃত ব্যক্তিটি যদি করোনা ভাইরাস পজিটিভ হন সেক্ষেত্রে তিনি চিকিৎসা এবং হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত যে কোন একটি উপায়ের মাধ্যমে দাবির আবেদন জানাতে পারেন:

অর্থ প্রত্যর্পনের দাবি: যদি আপনি অর্থ প্রত্যর্পনের জন্য দাবি জানান, সে ক্ষেত্রে আপনাকে চিকিৎসা এবং হাসপাতালের ভর্তির খরচ আপনার নিজের পকেট থেকে দিতে হবে। অতঃপর বীমাকৃত ব্যক্তিটিকে প্রয়জনীয় ডকুমেন্ট যেমন হাসপাতালের বিল ইত্যাদি জমা দিয়ে ব্যয় হওয়া অর্থ প্রত্যর্পনের জন্য দাবি জানাতে হবে।

নগদহীন দাবি: নগদহীন স্বাস্থ্য বীমা আপনাকে আপনার পকেট থেকে একটি টাকা খরচ না করে নেটওয়ার্কের অধীনস্ত হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা লাভের জন্য অনুমোদন দেয়। আপনাকে কেবলমাত্র ই-হেলথ কার্ডটি হাসপাতালে দেখাতে হবে এবং নগদহীন চিকৎসার আবেদনের ফর্মটি সই করতে হবে যাতে আপনার বীমা প্রদানকারী সরাসরি হাসপাতালে খরচের বিলটি মিটিয়ে দেবে।

বীমার পরিকল্পনার সুবিধা পাওয়ার জন্য, বীমাকৃত ব্যক্তিকে দাবির আবেদন জানানোর সময় অতি অবশ্যই নিম্নলিখিত ডকুমেন্টগুলি উপস্থাপনা করতে হবে:

  • ভাইরাসের চিকিৎসা শুরু করার জন্য সরকারি মেডিক্যাল অফিসারের থেকে একটি কোয়ারান্টিন সার্টিফিকেট
  • যদি বীমাকৃত ব্যক্তিটি করোনা পিসিটিভ হন সেক্ষেত্রে অতি অবশ্যই পজিটিভ ভাইরোলজি রিপোর্ট জমা করতে হবে।

স্বাস্থ্য বীমার বিষয়ে আইআরডিএআই এর আপডেট

আইআরডিএআই করোনা ভাইরাস সম্বন্ধিত দাবির নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে একটি নিয়মাবলী জারি করেছে। আইআরডিএআই কর্তৃক প্রচারিত নিয়মাবলিগুলি নিচে তালিকাবদ্ধ করা হলো:

  • সমস্ত বীমা প্রদানকারী সংস্থাকে কোভিড-19 সংক্রান্ত বীমার দাবিগুলিকে তাৎক্ষণিক ভাবে পরিচালনা করতে হবে।
  • চিকিৎসার সময় কালে উত্থাপিত গ্রহণযোগ্য খরচ অতি অবশ্যই নিয়ন্ত্রক কর্তৃক জারি করা নিয়ম ও শর্তাবলী অনুযায়ী মিটিয়ে দিতে হবে।
  • দাবির পর্যালোচনার কমিটিকে অতি অবশ্যই কোভিড-19 সম্পর্কিত প্রতিটি দাবির আবেদন খুঁটিয়ে বিশ্লেষণ করতে হবে
  • আইআরডিএআই আইন এর 14 (2) (e) অধ্যায়ের অধীনে জারি করা নির্দেশাবলী অতি দ্রুততার সাথে প্রযোজ্য হবে।